শিল্প সাহিত্য

আমি প্রধান মন্ত্রীকে কিছু বলতে চাই

মোঃ সালমান অথিফ :

৩৩টি বছর কাটালাম আশায় আশায়-

গায়ক হবো লেখক হবো,

শিশুকাল থেকে মায়ের আঁচল ছেড়েছি।

ছোট্ট এই বাংলার বুকে- এদার ওদার ঘরেছি…..

সত্য সততা নিতি আদর্শ বাস্তবতার খোঁজে-

একজন মানুষের খোঁজে, পেলাম না।

যা ছিল তাও হারালাম, আপনের বর্ণনার মাপ-

অনুভব করতে গিয়ে!

মৃত্যু খুধা বুকে ধরে-ধনুকের কর্মস্থল থেকে

বার বার ফিরেছি।

অশ্রু সিগ্ধ দুটি চোখ, শান্তনার বানী পেতে-

ধরেছি হাতে কলম,-

তুলেছি সুর ও গীত —

খুজেছি কবিতা খুজেছি গান ।

কে যেন কিছু-ডেকে ডেকে – বলছে, খুব বলছে-

কবি আর কত দুর……..?

কবি আর কত দুর……..?

আমাকে যারা বলেছিলো,- তুই গায়ক হতে পারলে,

তুই লেখক হতে পারলে (আমার)

হাতে তাল গাছ জ্বালাবে !!

আমি সেই তালগাছটি দেখার জন্য,

আমার প্রধানমন্ত্রীকে কিছু বলতে চাই।

আমি আজও বুকে পাথর চেপে রেখেছি।

যে বেথা গুলো, যে কষ্ট গুলো – সে বেথাগুলো বলতে চাই,

তিনীতো শুধু নেত্রীই নয়- গোটা জাতির- ভবিষ্যৎ, আঁচল ছায়া গোটা জাতির মা।
সে মায়ের কাছে নালিশ জানাতে চাই।

আমি আর কিছু না পাই।

চিরকাল আমাকে যারা ধংশ করেছে- নিশ্ব করেছে- আমাকে পথে পথে ঘুরিয়েছে।
আমি তাদেরকে, অন্দকার কারাগারে আজীবনন্ত কাল দেখেতে চাই !

পারলে সাংবাদিক ভাই- আমার এ বাণী খানি পৌছে দিবেন- আমার নেত্রী মায়ের কাছে।
ঝড় আসলে প্রদীপ নিভে যাবে !

এক দিন সাগর সমুদ্র হেড়ে যাবে! ডুবে যাবে ঐ হিমালয়!
ছুয়ে যাবে আকাশটাকে,-

দুচোখের জল এত ঝড়লে, মুছে যাবে সপ্ন দেখা- নেমে আসবে আধার
তিমির কালো রাত্রি!

অর্থ হীন এ জীবন, ভাঙ্গা পাত্রের মতন !

হয়বা প্রবীন কালে, স্থান মেলবে মোর

উত্তম আপন- ময়লার ডাষ্টবীন !

দিনের আলোয় শিখা হয়ে- আর দোড়াতে চাইনা পথে পথে….. ভাগ্য টাতে আধার লয়ে।

আমি আধারের প্রদীপ, জ্বলে উঠবোই- উঠবো।

হতেও পারে কভু- আমার আলোয়…….

আলোকিত হবে গোটা অবনী- সারা বাংলা।

আমিও হবো একদিন- বাংলার ভবিষ্যৎ-

একটুকরো শান্তি মমতা আলোর নিশান!।

জীবনে অনেক সাংবাদিকের পিছনে ঘুরেছি-

কেহ আমাকে পাত্তাই দেয়নি! ওই যে,

আমরা মানব জাতি সবকিছুকে, সামনে থেকে দেখী।

জীবনে অনেক সংঙ্গীত-মিডিয়াদের পায়ে পরেছি- কেহ দাম দেয়নী।
অনেক চোর ছেচড়- আমার প্রতিভা খেয়েছে,
খেতে চাচ্ছে।

তার পরও কোন সাংবাদিকের হাতে তুলে দিলাম-
আমার এ পোড়া কপালের অনুনয়!
তার বিবেক এর দারে।

 

অপ্রকাশ্য সুর সাধক ঃ
মোঃ সালমান অথিফ
(০১৫৭২২৮০৯১৪)
খুলনা।