আজকের সেরা সংবাদ

মেসিকে বিক্রি করতে উঠেপড়ে লেগেছেন বার্সা সভাপতি!

স্টার টোয়েন্টিফোর টিভি নিউজ ডেক্স :

ক’দিন আগে মন্তব্য করেছিলেন, গেল মৌসুমেই লিওনেল মেসিকে বিক্রি করে দেওয়া উচিত ছিল। বার্সেলোনার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি কার্লেস টুসকেটসের এমন মন্তব্যের পর চারপাশে সমালোচনার ঝড় ওঠে। কোচ রোনাল্ড কোম্যান তো সরাসরিই জানিয়েছেন, এমন কথাবার্তায় মাঠের খেলায় প্রভাব পড়ে।

চারপাশের সমালোচনাও অবশ্য টলাতে পারেনি বার্সার ভারপ্রাপ্ত সভাপতিকে। আবারো মন্তব্য করেছেন, ক্লাব কিংবদন্তিকে বিক্রি করে দিলেই লাভ হবে কাতালানদের!

মৌসুম শুরুর আগেই ফ্রি ট্রান্সফারে ক্লাব ছাড়তে চেয়েছিলেন ক্লাবটির কিংবদন্তি ফুটবলার মেসি। এক ব্যুরোফ্যাক্সের মাধ্যমে জানিয়েছিলেন, নিজের ক্লাব ছাড়ার ইচ্ছের কথা। সে সময় বেশ কয়েকটি ক্লাব এগিয়েও এসেছিল তাকে দলে ভেড়াতে। তবে নিজেদের আর্থিক দৈন্যদশার মধ্যেও এই আর্জেন্টাইন তারকাকে ছাড়তে কোনোভাবেই রাজি হয়নি বার্সা। বরং চুক্তির মারপ্যাঁচে ফেলে তাকে আটকে রেখেছে।

এ ঘটনায় সমালোচনার মুখে সভাপতির পদ ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন হোসে মারিয়া বার্তোমিউ। আগামী জানুয়ারিতে ক্লাবের নির্বাচনের আগ পর্যন্ত তার স্থলাভিষিক্ত হন টুসকেটস।

তবে টুসকেটস উঠেপড়ে লেগেছেন লিওকে বিক্রি করে দিতে। আগের মন্তব্যের রেশ টেনেই আবারো জানালেন, মেসিকে বিক্রি করে দিলে আর্থিকভাবে লাভবান হবে বার্সা।

৬৯ বছর বয়সী টুসকেটস বলেন, আমি বলি নি যে মেসিকে বিক্রিই করে দিতাম। আমি বলেছি, সে চলে গেলে আর্থিকভাবে ক্লাব লাভবান হতো। কারণ বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বেতন পায় সে। তবে এই সিদ্ধান্ত নেয়ার তো আমি কেউ না। মেসি ক্লাবে থাকবে নাকি চলে যাবে সেটা তার সিদ্ধান্ত। ম্যানেজিং বোর্ডের এখানে কিছু করার নেই।

টুসকেটসের আগেরদিনের মন্তব্যের পর ক্ষেপে ওঠেন ক্লাব কোচ রোনাল্ড কোম্যান। ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সে প্রসঙ্গ টেনে বলেন, আমি কোম্যানকে বলবো, সে আমার কথার ভুল বুঝেছে। আমি শুধু গাণিতিক হিসেবটা তুলে ধরলাম।