সারাদেশ

শিবালয় উপজেলায় প্রথম নারী ইউএনও জেসমিন সুলতানার যোগদান

নিজস্ব প্রতিবেদক,মানিকগঞ্জ :

মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলায় প্রথমবারের মতো নারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হিসেবে জেসমিন সুলতানা যোগদান করেছেন।

রোববার (০৬ জুন ) তিনি দায়িত্বভার গ্রহণ করেন। জেসমিন সুলতানা নরসিংদী জেলার বেলাবো উপজেলার বাসিন্দা জেসমিন সুলতানা এর আগে ফরিদপুর জেলার চরভদ্রাসন উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

রোববার (০৬ জুন) সকালে মানিকগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে তিনি যোগদান করে শিবালয় উপজেলা অফিসে আসেন ।

এ সময় শিবালয় উপজেলা চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাইন্সিলের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা রেজাউর রহমান খান জানু ও শিবালয় উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি আবু দরদা তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান । এছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন দফতরের কর্মকর্তা কর্মচারীরাও ফুলেল শুভেচ্ছা জানান তাকে। এসময় উপস্থিত ছিলেন- উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

দায়িত্ব গ্রহনের পর তাৎক্ষনিক প্রতিক্রীয়ায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জেসমিন সুলতানা বলেন, ‘শিবালয় উপজেলায় প্রথম নারী ইউএনও হিসেবে যোগদান করতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত। আমি এই চ্যালেঞ্জটা গ্রহণ করেছি। সবার সহযোগিতা নিয়ে আমি আমার ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে চাই। এই উপজেলা ছেড়ে যাওয়ার সময় যেন সবাই বলতে পারেন তিনি পুরুষের চাইতে কোনো অংশেই কম ছিলেন না।

মানিকগঞ্জের শিবালয় ১৮৭৫ সালে থানার মর্যাদা লাভ করে। ১৯৮৪ সালে এটি উপজেলা হিসেবে উন্নীত হয়। জেসমিন সুলতানা এই উপজেলার প্রথম নারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করলেন।

জেলার গুরুত্বপূর্ণ এই উপজেলায় পাটুরিয়া ও আরিচা ঘাট অবস্থিত। এ দুটি ঘাট দিয়ে প্রায় সময়ই ভিআইপিরা যাতায়াত করেন। এ কারণে এ উপজেলাকে ‘প্রটোকল এরিয়া’ বলা হয়। নারী ইউএনও হিসেবে এই দায়িত্বপালনও জেসমিন সুলতানার জন্য একটি চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন স্থানীয় অনেকেই।